Total Pageviews

Wednesday, December 4, 2013

নাক দিয়ে রক্ত পড়া (Epistaxis) এর সমস্যা ও সমাধান!

নাক দিয়ে রক্ত পড়া আমাদের একটি সাধারণ বা সচরাচর ঘটে থাকা ঘটনার মধ্যে একটা। আসুন জেনে নেই নাক দিয়ে রক্ত পড়া নিয়ে ...!


নাক দিয়ে রক্ত পড়া (Epistaxis) কি? 
ছোট ছেলে-মেয়েদের মধ্যে প্রায়ই নাক দিয়ে রক্ত পড়া দেখা যায়। অনেক সময় বড়দেরও পড়তে দেখা যায়। এটা বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে। রক্ত পড়া অল্প সময়ের জন্য ৩-৪ বার পড়তে থাকে। যদি ১-২ দিন অনবরত পড়তে থাকে তবে উপযুক্ত কারণ খুঁজে চিকিৎসা করা দরকার।

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারনঃ
নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারনগুলোকে আমরা তিন ভাগে ভাগ করতে পারি ...

১) কোন কারন ছাড়া রক্ত পড়াঃ 
কারণ ছাড়া (Idiopathic) ক্ষেত্রে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কোনো কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না ...
২) নাকের সমস্যাঃ
-> আঘাত -সাধারণত: নাকে কোন ভোতা বস্ত্ত দিয়ে আঘাত করলে
-> বহিরাগত দ্রব্য- যেমন হাত দিয়ে নাক খোটার সময়
-> শ্বাসতন্ত্রের অসুস্থতা জনিত- যেমন নাকের সর্দি, সাইনোসাইটিস
-> নাকের কোন সমস্যা, যেমন পলিপ/টিউমার থাকলে
-> রক্ত জমাট বাঁধার সমস্যা থাকলেও নাক দিয়ে রক্ত পরতে পারে
-> নাকের অপারেশন
৩) শারীরিক সমস্যাঃ
-> আঘাত
-> এলার্জি
-> প্রদাহ
-> উচ্চ রক্তচাপ
-> রক্ত স্বল্পতা/এনিমিয়া
-> রক্তে জমাট বাঁধার সমস্যা হিমফিলিয়া, লিউকোমিয়া ইত্যাদি
-> মাসিক-এর সময় এবং গর্ভাবস্থায়
-> এছাড়া ঔষধ যেমন-এসপিরিন, আইবুপ্রফেন সেবনের কারণে অনেক সময় নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।

লক্ষণ/চিহ্নঃ
সাধারণ বলে মনে হলেও রোগটি কিন্তু মোটেই সাধারণ রোগ নয়; বড় বিপজ্জনক রোগ। একে অবহেলা করা উচিত নয়। এই রোগে হঠাৎ হঠাৎ নাক দিয়ে রক্ত বের হতে পারে। কখনো ফোঁটা ফোঁটা, কখনো বেশ গড়গড় করে পড়ে। কখনো জমাট বাঁধা খয়েরি রঙের রক্তও বের হয়। নাকে ঘা বা ফোঁড়া না হলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার পিছনে নাক ছাড়াও অন্য কারণও থাকে। এটি উপসর্গ মাত্র।

চিকিৎসা/ব্যবস্থাপনাঃ
-> রোগীর পূর্ণ বিশ্রাম প্রয়োজন।
-> নাক দিয়ে রক্ত পড়লে সঙ্গে সঙ্গে বসে পড়ুন এবং বৃদ্ধ ও নির্দেশক অঙুলি দিয়ে নাকের সামনের নরম অংশে চাপ দিয়ে এবং মুখ দিয়ে শ্বাস নিন...
এভাবে ১৫-২০ মিনিট চেপে ধরলে অনেক ক্ষেত্রে রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যায়।
-> অনেক সময় কপালে, ঘাড়ে বরফ দিয়ে ঘষলে বা বরফ ঠান্ডা পানি খেলে উপকার পাওয়া যায়।
-> যদি এতেও বন্ধ না হয় তবে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।
-> অবস্থ্যা জটিল হলে ডাক্তার রক্তের উৎস (Cauter) নির্নয় করে নাক প্যাক (ANS/PNS pack) দিয়ে রক্তক্ষরন বন্ধ করেন। মেডিক্যাল কারণে রক্ত ঝরলে তার চিকিৎসা করেন। নাকের পেছনের অংশ থেকে রক্ত ঝরলে রোগীর অবস্থা আশঙ্কা যুক্ত হতে পারে ...!

উপদেশঃ খাদ্য ও পথ্য
#পথ্য খাবার কোনো অসুবিধা নেই, খেতে পারলে সব খাবারই খাওয়া যাবে।
#রোগের সঠিক কারণ খুঁজে বের করা গেলে সেভাবেই চিকিৎসা করতে হবে।
#উচ্চ রক্তচাপ বা বেশি রক্তশুন্যতার সৃষ্টি হলে হাসপাতালে পাঠাতে হবে।
#সঠিক রোগ নির্ণয় না করে চিকিৎসা করা উচিত না।

আপনাদের সুখী জীবনই আমাদের কাম্য। ধন্যবাদ।
Share:

0 comments:

Post a Comment

Follow by Email

স্বাস্থ্য কথা. Powered by Blogger.

Blog Archive